শিরোনাম
  প্রধানমন্ত্রীর ৭৫তম জন্মবার্ষিকীতে ৭৫ কেজি ওজনের কেক কাটলেন এমপি মানিক       ছয় মাস পর কারামুক্ত হলেন শাল্লার ঝুমন দাশ       পশ্চিম তেঘরিয়ায় বসত ঘরে দুর্ধর্ষ চুরি,স্বর্ণ ও নগদ টাকা লুট       রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পারিবারিক কবরস্থানে শায়িত হলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মালেক হোসেন পীর       সেতু বাস্তবায়নে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবাণ জানালেন পরিকল্পণামন্ত্রী ও নিউইয়র্ক আ:লীগ নেতা শাহী       জামালগন্জে বৈধ ইজারাদাকে সরকারের রাজস্ব আদায়ে বাধা প্রদানে বিএনপি সভাপতির নেতৃত্বে মানববন্ধন       জামালগঞ্জে বিএনপি নেতা এমদাদুল হক আফিন্দীর নামে চাঁদাবাজির অভিযোগ :       জামালগঞ্জে হাওরে মাছের আকাল, চাষের মাছই ভরসা       ছাতক পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগে আদালতে মামলা       দিরাইয়ে মডেল মসজিদের নির্মাণ কাজে ধীরগতি    


আওয়ামী লীগের টানা তিন মেয়াদের সরকারের প্রথম বছর পূর্তি হচ্ছে আজ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চার মেয়াদের প্রধানমন্ত্রিত্ব এর মধ্য দিয়ে নতুন উচ্চতায় পৌঁছল। বাংলাদেশের আর কোনো রাজনীতিক ১৬ বছর দেশকে নেতৃত্ব দিতে পারেননি। দল হিসেবে আওয়ামী লীগের জন্যও এটা রেকর্ড। বাংলাদেশে আর কোনো রাজনৈতিক দল পাঁচ মেয়াদে দেশ পরিচালনার দায়িত্ব লাভ করেনি। ব্যক্তিগতভাবে শেখ হাসিনা এবং দল হিসেবে আওয়ামী লীগের প্রতি আমাদের অভিনন্দন। এসব বড় অর্জন দায়িত্বও যে বাড়িয়ে দেয়, বর্তমান সরকারের প্রথম বর্ষপূর্তিতে আমরা সেই কথাও স্মরণ করিয়ে দিতে চাই। অস্বীকার করা যাবে না যে, আওয়ামী লীগের কিছু ‘মাস্টার স্ট্রোক’ রাজনীতির মাঠে প্রধান বিরোধী দল বিএনপিকে কোণঠাসা করে ফেলেছে। তিন মেয়াদে ক্ষমতায় থাকা ওই দলও করেছে কিছু অমার্জনীয় ভুল। একুশ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মতো ন্যক্কারজনক কিছু ‘কৌশল’ প্রয়োগ করে তারা আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বসমেত নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিল; সেগুলো বুমেরাং হিসেবে ফিরে এসে তাদেরই খাদের কিনারায় নিয়ে গেছে। কিন্তু এই পরিস্থিতিতেও আওয়ামী লীগ সরকারের কাছে রাজনৈতিক ঔদার্য প্রত্যাশিত। আমরা মনে করি, দল হিসেবে আওয়ামী লীগ ইতোমধ্যে অনন্য উচ্চতায় পৌঁছে গেছে। সরকারপ্রধান হিসেবেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখন সব রাজনীতিকের ধরাছোঁয়ার বাইরে। এখন তার নেতৃত্বাধীন দল ও সরকারের উচিত গণতান্ত্রিক চর্চা ও প্রাতিষ্ঠানিকতায় নজর দেওয়া। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সব দলকে ভোটের মাঠে উপস্থিত করতে পারা নিঃসন্দেহে ছিল একটি বড় সাফল্য। কিন্তু ওই নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু, সব মহলের কাছে গ্রহণযোগ্য করে তুলতে না পারাও ছিল বড় ব্যর্থতা। আমাদের দেশে নির্বাচনে পরাজিত দলের পক্ষে কারচুপির অভিযোগ নতুন নয়। কিন্তু মনে রাখতে হবে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ প্রক্রিয়া নাগরিক সমাজ এবং আন্তর্জাতিক মহলের সংখ্যাগরিষ্ঠ অংশের কাছেও প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছিল। আসন্ন ঢাকা সিটি করপোরেশনসহ চলতি মেয়াদের আগামী চার বছরে অনুষ্ঠেয় সব নির্বাচন ও উপনির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য করে তুলে এসব প্রশ্ন নিরসন করতে পারে। বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোও যাতে কেন্দ্র থেকে মাঠ পর্যায়ে নির্বিঘেœ সভা-সমাবেশ করতে পারে এবং নাগরিক সমাজ যাতে মতপ্রকাশের পূর্ণ স্বাধীনতা পেতে পারে, সে ব্যাপারে সরকার ও ক্ষমতাসীন দল ইতিবাচক অবস্থান নিতে পারে। একই সঙ্গে সুশাসনেও দিতে হবে আরও বেশি নজর। শেখ হাসিনার সরকারের টানা তিন মেয়াদে অর্থনৈতিকভাবে বাংলাদেশ অনেক এগিয়েছে, সন্দেহ নেই। আমরা ইতোমধ্যে নি¤œ আয়ের দেশ থেকে নি¤œমধ্যম আয়ের দেশে উত্তীর্ণ হয়েছি। ঝেড়ে ফেলতে যাচ্ছি স্বল্পোন্নত দেশের তকমাও। কিন্তু অর্থনৈতিক সুশাসনের প্রয়োজন সা¤প্রতিক সময়ে আরও প্রকট হয়েছে। বিশেষত ব্যাংক খাতে অব্যবস্থাপনা সরকার সমর্থক অর্থনীতিবিদ ও নাগরিক সমাজের মধ্যেও উদ্বেগ সৃষ্টি করেছে। আমরা দেখতে চাইব, বর্তমান সরকারের আগামী চার বছরে এই খাতে দৃশ্যমান সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। পদ্মা সেতুসহ মেগা প্রকল্পগুলো অবকাঠামোগত উন্নয়নে বাংলাদেশে নিশ্চয়ই নতুন যুগের সূচনা করতে যাচ্ছে; কিন্তু প্রকল্পের ব্যয় বৃদ্ধি এমনকি অনিয়মের অভিযোগ কীভাবে এই সাফল্য ¤øান করতে পারে, রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ‘বালিশ কেলেঙ্কারি’ তার প্রমাণ। আমরা প্রত্যাশা করি, যে কোনো মাত্রার অনিয়ম ও দুর্নীতি কঠোর হস্তে দমন করা হবে। ক্যাসিনোকাÐের জের ধরে দলে যে শুদ্ধি অভিযান শুরু হয়েছে, তা অব্যাহত রাখতে হবে মেয়াদের শেষ দিন পর্যন্ত। কেবল রাজনীতিতে নয়, আমলাতন্ত্র ও শিক্ষা খাতেও শুদ্ধি অভিযান এখন সময়ের দাবি। মহান মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্ব দানকারী আওয়ামী লীগের সময়েই মুক্তিযোদ্ধা কিংবা রাজাকারের তালিকা নিয়ে যেসব অভিযোগ ও অব্যবস্থাপনা আমরা দেখেছি, তা কোনোভাবেই কাম্য ছিল না। এক্ষেত্রে মন্ত্রিসভা ও আমলাতন্ত্রের দক্ষতার প্রশ্নটিও স্বাভাবিকভাবে সামনে আসে। জঙ্গিবাদ দমনসহ আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষায় সরকার যদিও দক্ষতার পরিচয় দিয়ে আসছে, ধর্ষণ, খুনের মতো সামাজিক অপরাধ ক্রমে বাড়ছে। এসব অপরাধ নিয়ন্ত্রণে প্রশাসনের পাশাপাশি ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলেরও সক্রিয় হওয়া উচিত। দুর্ভাগ্যবশত, অনেক ক্ষেত্রেই এসব অপরাধে আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতাকর্মীদেরই সম্পৃক্ততা স্পষ্ট। সরকারের পাশাপাশি দলকেও কঠোর নিয়ম-শৃঙ্খলায় পরিচালনার বিকল্প নেই। আমরা চাই- বর্তমান মেয়াদের বাকি চার বছর সরকার বিগত বছরের তুলনায় বেশি দক্ষতা ও স্বচ্ছতার পরিচয় দেবে। ক্ষমতাসীন দল হয়ে উঠবে আরও বেশি গণতান্ত্রিক, উদার, সহনশীল ও পরিণত।




প্রধানমন্ত্রীর ৭৫তম জন্মবার্ষিকীতে ৭৫ কেজি ওজনের কেক কাটলেন এমপি মানিক

ছয় মাস পর কারামুক্ত হলেন শাল্লার ঝুমন দাশ

পশ্চিম তেঘরিয়ায় বসত ঘরে দুর্ধর্ষ চুরি,স্বর্ণ ও নগদ টাকা লুট

রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পারিবারিক কবরস্থানে শায়িত হলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মালেক হোসেন পীর

সেতু বাস্তবায়নে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবাণ জানালেন পরিকল্পণামন্ত্রী ও নিউইয়র্ক আ:লীগ নেতা শাহী

জামালগন্জে বৈধ ইজারাদাকে সরকারের রাজস্ব আদায়ে বাধা প্রদানে বিএনপি সভাপতির নেতৃত্বে মানববন্ধন

জামালগঞ্জে বিএনপি নেতা এমদাদুল হক আফিন্দীর নামে চাঁদাবাজির অভিযোগ :

জামালগঞ্জে হাওরে মাছের আকাল, চাষের মাছই ভরসা

ছাতক পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগে আদালতে মামলা

দিরাইয়ে মডেল মসজিদের নির্মাণ কাজে ধীরগতি

১৮ কিলোমিটার ফ্লাইওভার নির্মাণ করে সুনামগঞ্জের সাথে ধর্মপাশার যোগাযোগ স্থাপন করা হবে : পরিকল্পনা মন্ত্রী

তাহিরপুরের সাবেক এমপি কালিচরন মুচির পরিবারে এখনও টিকে আছে নাগরী ভাষা

বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির প্রতিবাদ-বিক্ষোভ

আমলাদের ‘পাছায় লাথি’ ফর্মুলায় দুঃস্থ তালিকা

গরু চুরির প্রতিবাদ করতে গিয়ে জামালগঞ্জে দুই পক্ষের সংঘর্ষ। আহত ৪।

আওয়ামীলীগের ৬ইউনিটের সম্মেলন প্রস্ততি কমিটি দলকে গতিশীল করতে করা হয়েছে

২০ ফেব্রুয়ারি পরিকল্পনা মন্ত্রীর দিরাই সফর নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত আ.লীগ,দেখানো হতে পারে কালো পতাকা

সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালের প্রধান সহকারী ইকবাল ও তার স্ত্রীর সম্পদের উৎস কোথায় ?

সুনামগঞ্জ সরকারী কলেজ পুনর্মিলনী : সদস্যসচিব এর বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অভিযোগ দায়ের

এমপিরা অতঃপর ‘স্যার’ বলবেন ডিসিদের !!

error: Content is protected !!