শিরোনাম
  জামালগঞ্জে বিএনপি নেতা এমদাদুল হক আফিন্দীর নামে চাঁদাবাজির অভিযোগ :       জামালগঞ্জে হাওরে মাছের আকাল, চাষের মাছই ভরসা       ছাতক পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগে আদালতে মামলা       দিরাইয়ে মডেল মসজিদের নির্মাণ কাজে ধীরগতি       আজ পহেলা সেপ্টেম্বর রানীগঞ্জ গণহত্যা দিবস       খানাখন্দে ভরা জামালগঞ্জ কারেন্টের বাজার সড়ক,ভোগান্তি অর্ধলক্ষ মানুষের       শ্রীরামসী গণহত্যা দিবস পালিত       এক হাজার পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর উপহার প্রদান করলেন মুকুট       তাহিরপুরে শহীদ সিরাজের সমাধিতে এমপি সহ নেতাকর্মীদের দোয়া       সুনামগঞ্জের সম্ভাবনাময় পর্যটন নিয়ে সরকার ব্যাপক আন্তরিক পর্যটন সচিব    


বিশেষ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জ মহকুমা থেকে জেলা আওয়ামীলীগ পর্যন্ত দীর্ঘকালীন সময়ে মূলধারার আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে ১৫ পরিবারের নেতাকর্মীদের সুযোগ্য অনেক উত্তরাধিকারীরা আজো আওয়ামীলীগ রাজনীতিতে উপেক্ষিত। বিশেষ করে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারন সম্পাদক আব্দুল হাই এর সুযোগ্য কোন পুত্রসন্তান না থাকলেও তার আপন ভাগ্নেরা দেশ বিদেশে আওয়ামীলীগ রাজনীতিতে অবদান রেখে চললেও দলের মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য কোন পদ -পদবীতে নেই বলে দলকে দেওয়ার মত অবস্হায় থাকলেও দলকে কিছু দিতে পারছেন না ,এরা হচ্ছেন নিউইয়র্ক আওয়ামীলীগ এর সাবেক সভাপতি ও মহকুমা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নুরুজ্জামান চৌধুরী শাহী,সাবেক ছাত্রনেতা ইমানুজ্জামান চৌধুরী মহী,জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও আওয়ামী যুবলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আহমদুজ্জামান হাসান ।আব্দুল হাই চাচাতোভাইয়ের ছেলে নওশাদ মসরু অনেকদিন পর্যন্ত আওয়ামী রাজনীতিতে জড়িত থাকলেও কোন পদ ,পদবী এখন পাননি। আব্দুল হাই সাহেবের নাতি আল-হেলাল,দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সুনামগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি হলেও আওয়ামীলীগের কোন পদে নেই ।

আব্দুল হাই এর বড় ভাই মহকুমা আওয়ামীলীগের কার্যকরী কমিটির সদস্য পরবর্তীতে অর্থ সম্পাদক আব্দুল আহাদ চৌধুরী তারা মিয়ার পুত্র মারুফ চৌধুরী ,আনুল চৌধুরী ,মাজেদ চৌধুরী ,বিদেশে থেকেও এখনও আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে অবদান রেখে চলেছেন। আওয়ামীলীগের দীর্ঘকালীন সময়ের সক্রিয় নেতা ও সাধারন সম্পাদক আকমল আলী মোক্তারের সুযোগ্য পুত্র ফারুক আহমদ একসময় যুবলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় ভূমিকা পালন করলেও বর্তমানে নিস্ক্রিয় রয়েছেন। আকমল আলী মোক্তারের সুযোগ্য দৌহিত্র ইমতিয়াজ আরাফাত ফাহিম মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সংগঠনের সাথে সক্রিয়ভাবে জড়িত আছেন।

মহকুমা আওয়ামীলীগের সর্বশেষ সভাপতি সাবেক মন্ত্রী অক্ষয় কুমার দাশের সুযোগ্য দৌহিত্র সঞ্জয় দাশ ছাত্রজীবনে ছাত্র রাজনীতি করলেও বর্তমানে ঢাকাতে ব্যবসা এবং শারীরীক অসুস্থতা নিয়ে কাটাচ্ছেন ।

মহকুমা আওয়ামীলীগ নেতা আপ্তির মিয়ার দুই ছেলে আর্থিক অবস্হা ভাল না থাকলেও দলে পদ-পদবী না পেলেও দলের সাথে জড়িত আছেন ।এবং ক্ষুদ্র ব্যবসা করে জীবনযাপন করতেছেন । মহকুমা আওয়ামীলীগনেতা সৈয়দ দেলোয়ার হোসেন এর দুই ছেলে রাজনীতির বাইরে আর্থিক অনটনে খুবই কষ্টে মধ্যে জীবনযাপন করতেছেন । দিরাইয়ের রনদা প্রসাদ চৌধুরীর উত্তরাধিকারীর কোন খোজ পাওয়া যায়নি ।

মহকুমা আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী নেতা হোসেন বখত এর পুত্র সাবেক সাধারন সম্পাদক মেয়র আয়ুববখত জগলুলের আকষ্মিক মৃত্যুর পর সুনামগন্জ পৌরসভার উপনির্বাচনের তারই ভাই প্রবাসী নাদের বখত প্রবাস থেকে এসে নৌকা প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করে নির্বাচিত হন । তিনি আবারও নৌকার মনোনয়নে সুনামগন্জ পৌরসভায় মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন ।আরেক ছেলে সাবেক ছাত্রনেতা নোমান বখত পলিন দলের কোন পদে নেই ।

আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি এম.এ রইছ এর ৩ পুত্র যথাক্রমে ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন সাবেক জেলা পরিষদ প্রশাসক ,বর্তমানে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এবং এডভোকেট খায়রুল কবির রোমেন সাবেক পিপি বর্তমান জেলা কমিটির সহ-সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করছেন।আরেক ছেলেও জেলা কমিটিতে আছেন ।

মহকুমা আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী নেতা এডভোকেট খলিলুর রহমান এর একমাত্র পুত্র হায়দার চৌধুরী লিটন বর্তমান কমিটিতে যুগ্ম সম্পাদক , আগের কমিটিতেও যুগ্ম সম্পাদকের পদে ছিলেন ।

সাবেক সভাপতি মরহুম আব্দুজ জহুরের পুত্র জুনেদ আহমদ একবার নৌকা প্রতিক নিয়ে সুনামগন্জ সদরে উপজেলা নির্বাচন করলেও জয়ী হতে পারেননি , বর্তমান আওয়ামীলীগ কমিটিতে সাংগঠনিক সম্পাদক পদে রয়েছেন । মেয়ে রীতা বেগম মহিলা আওয়ামীলীগে সহ-সভাপতি পদে রয়েছেন । ৭৫পরবর্তী নির্যাতিত এবং কারাবাসী জালাল উদ্দিন এবং তার উত্তরাধিকারীরা আওয়ামীলীগ রাজনীতি করলেও পদ-পদবী কোথাও নেই ।

স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় নির্যাতিত এবং মৃতের মূখ থেকে ফিরে আসা এবং ৭৫পরবর্তী নির্যাতনের স্বীকার আওয়ামীলীগের প্রতিষ্টাতা সদস্য গোলাম কাদিরের পরিবারের দুই ছেলে জাকিরহাসান দীপু ,মনজ্জির হাসান দীপন, আওয়ামী রাজনীতিতে সবসময় অবদান রেখে সক্রিয় থাকলেও পদ -পদবী পাননি ।৭৫পরবর্তী দূর্দিনে উনার মেয়ে জাহানারা বেগম ছাত্র রাজনীতিতে উল্লেখ্যযোগ্য ভূমিকা রাখলেও অদ্য বধি মূল্যায়িত হননি ।

আমীর হোসেন রেজার পরিবার স্বাধীনতা পূর্ববর্তী আওয়ামী পরিবার এবং ৭৫পরবর্তী দূদিনেও আওয়ামীরাজনীতিতে উল্লেখ্যযোগ্য ভূমিকা রাখলেও কখনও ভাল পদ-পদবী কপালে জোটেনি সবসময়ই অবমূল্যায়িত রয়ে গেছেন।

মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক সুনামগন্জ মহকুমা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নূরজ্জামান শাহী ৭৫ সালে কারাবাসী শারীরীক নির্যাতনের স্বীকার আপন ভাই ইমানুজ্জামান মহীসহ , উনারই মামা সুনামগন্জ আওয়ামীলীগ এর প্রতিষ্টাতা সাধারন সম্পাদক মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক আব্দুল হাই ।নূরজ্জামান শাহী, ইমানুজ্জামান মহী এবং আহমদুজ্জামান হাসান আওয়ামীলীগ রাজনীতিতে সক্রিয় থাকলেও দলের উল্লেখ্যযোগ্য কোন পদ-পদবীতে নেই

মুজিববর্ষের জন্য সুনামগন্জ আওয়ামীলাগকে ৭১ সালের রাজাকার এবং তাদের উত্তরাধিকার মুক্ত এমনকি ৭৫ সালের বেনিফিসারী এবং যারা বঙ্গবন্ধুর স্বপরিবারে নির্মম অমানবিক হত্যাকান্ডের পর সুনামগন্জে যারা উল্লাস করেছিল এবং যারা ৭৫পরবর্তী আইনশৃঙলা রক্ষাকারী বাহিনিকে সাথে নিয়ে আওয়ামীলীগ এবং ছাত্রলীগ নেতাদের বাসা চিনিয়ে দিয়েছিল তাদেরকে এবং তাদের উত্তরাধিকারীদের আওয়ামীলীগ থেকে বের করে দিয়ে অবমূল্যায়িত পরিবারদের মূল্যায়িত করা জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে আওয়ামী পরিবারের প্রানের দাবী এখন।

এইসব আওয়ামী বিরোধী অনুপ্রবেশকারীরা ৮৬ -৮৮এবং ৯৬ সালে সুনামগন্জ আওয়ামীলীগে অনুপ্রবেশের ষোলকলা পূর্ন করে এখন সুনামগন্জ আওয়ামীলীগে লুটেরা,ও ফ্রাংকেনস্টাইনের দানব হিসাবে আবির্ভুত হয়ে আছে ।

এদেরকে একজন জাতীয়নেতা নিজের স্বার্থে , নিজের দল বড় করার জন্য ,আওয়ামীলীগ বা দলের স্বার্থকে জলান্জলী দিয়ে আওয়ামীলীগে প্রবেশ করিয়েছিলেন ,এখনও কিছু দলীয় নেতা এদেরকে দলে বা সরকারে পদ-পদবী পেতে সাহায্য করতেছেন এদেরকেও দলে চিহ্নিত করা অতীব জরুরী হয়ে পড়েছে । এরা দলের দূর্দিন আসলে অতিথিপাখির মত চলে যাবে।

জননেত্রী শেখ হাসিনা সুনামগন্জের এইসব অনুপ্রবেশকারীদের বিরদ্ধে ব্যবস্তা নিলে, সুনামগন্জের মৃত্য নির্যাতিত বঙ্গবন্ধুর সাথে রাজনীতি করা সকলের আত্মা শান্তি পাবে ,আর যারা এখনও জীবিত তাদের মনের জ্বালা ,যন্থনা এবং কষ্ট অনেকটা লাগব হবে । এবং এটা একমাত্র সম্ভব বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার দ্বারা বলে তারা বিশ্বাস করেন ।সাথে সাথে অবমূল্যায়িত পরিবারের সদস্যদের পদ-পদবী দিয়ে মূল্যায়িত করার জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে আশা করতেছেন দূর্দিনের আওয়ামীলীগ পরিবারের সদস্যরা ।




১৮ কিলোমিটার ফ্লাইওভার নির্মাণ করে সুনামগঞ্জের সাথে ধর্মপাশার যোগাযোগ স্থাপন করা হবে : পরিকল্পনা মন্ত্রী

তাহিরপুরের সাবেক এমপি কালিচরন মুচির পরিবারে এখনও টিকে আছে নাগরী ভাষা

বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির প্রতিবাদ-বিক্ষোভ

আমলাদের ‘পাছায় লাথি’ ফর্মুলায় দুঃস্থ তালিকা

গরু চুরির প্রতিবাদ করতে গিয়ে জামালগঞ্জে দুই পক্ষের সংঘর্ষ। আহত ৪।

আওয়ামীলীগের ৬ইউনিটের সম্মেলন প্রস্ততি কমিটি দলকে গতিশীল করতে করা হয়েছে

২০ ফেব্রুয়ারি পরিকল্পনা মন্ত্রীর দিরাই সফর নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত আ.লীগ,দেখানো হতে পারে কালো পতাকা

সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালের প্রধান সহকারী ইকবাল ও তার স্ত্রীর সম্পদের উৎস কোথায় ?

সুনামগঞ্জ সরকারী কলেজ পুনর্মিলনী : সদস্যসচিব এর বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অভিযোগ দায়ের

এমপিরা অতঃপর ‘স্যার’ বলবেন ডিসিদের !!

error: Content is protected !!