এমপি রতন ও তার ভাইয়ের ছবি দিয়ে ম্যুরাল নির্মানের প্রতিবাদে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি

এমপি রতন ও তার ভাইয়ের ছবি দিয়ে ম্যুরাল নির্মানের প্রতিবাদে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি

প্রতিদিন প্রতিবেদক : সুনামগঞ্জ- ১ আসনের সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন ও তাঁর ভাই মোজাম্মেল হোসেন রোকনের বিরুদ্ধে জাতির জনককে অবমাননা করার সুনির্দিষ্ট অভিযোগ এনে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। রবিবার (৬ নভেম্বর) বিকেলে স্থানীয় মর্মাহত ও বিক্ষুব্ধ জনসাধারনের পক্ষে জেলা প্রশাসক মো. জাহাাঙ্গীর হোসেনের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট,মধ্যনগর উপজেলা শাখার আহবায়ক মোঃ রাসেল আহমদ। ৩ দফা অভিযোগ সংবলিত স্মারকলিপিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ম্যুরাল থেকে অনতি বিলম্বে মোয়াজ্জেম হোসেন রতন ও তাঁর ভাই মোজাম্মেল হোসেন রোকন ভাতৃদ্বয়ের প্রতিকৃতি অপসারন,সরকারী অর্থায়নে নির্মিত রাষ্ট্রীয় মর্যাদা সম্পন্ন এই স্থাপত্যকর্মের মূল ডিজাইন পরিবর্তনের সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে উপযুক্ত শাস্তি প্রদান এবং স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিকৃতি সম্বলিত রাষ্ট্রীয় মর্যাদা সম্পন্ন স্থাপত্যকর্ম তথা ম্যুরাল এর সাথে বেআইনীভাবে মোয়াজ্জেম হোসেন রতন ও তাঁর ভাই মোজাম্মেল হোসেন রোকন ভাতৃদ্বয়ের প্রতিকৃতি সংযুক্ত করে জাতির পিতার সুমহান মর্যাদাকে ক্ষুন্ন করা ও প্রধানমন্ত্রীকে হেয় প্রতিপন্ন করার ঘটনায় চরম দৃষ্টতা প্রদর্শনকারী সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন ও তাঁর ভাই মোজাম্মেল হোসেন রোকনের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানানো হয়। স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন মধ্যনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পরিতোষ সরকার ও সদস্য সাজেদা আক্তারসহ স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দরা। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন,স্মারকলিপি পেয়েছি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট এটি পাঠানো হবে। এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী নিজেই সিদ্ধান্ত দিবেন।
এদিকে অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চেয়ে সুনামগঞ্জ ১ আসনের সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন ও তার ভাই ধর্মপাশা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন রুকন এর মুঠোফোনে একাধিকবার কল করেও ফোন রিসিভ না করায় তাদের বক্তব্য জানা যায়নি।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *