জেলা পরিষদ নির্বাচন ,লড়াই হবে হাড্ডাহাড্ডি । জনমত জরিপে শেষ সময়ে রুমেন এগিয়ে ?

প্রতিদিন প্রতিবেদকঃ আজ সোমবার (১৭ অক্টোবর) সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদে ভোট। সকাল ৯টা থেকে টানা ২টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে প্রতিটি কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ মনিটরিং করার জন্য প্রতি ভোটকেন্দ্রে সিসিটিভি স্থাপন করা হয়েছে। সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ পরিবেশে জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের সব প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। নির্বাচনে চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪৬ প্রার্থী। দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী ছাড়াও সদস্য পদে ১২ ওয়ার্ডে ১২টি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩৩ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৪ ওয়ার্ডে ৪টি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১১ নারী।

জেলা নির্বাচন অফিস জানিয়েছে, এই নির্বাচনে সুনামগঞ্জ জেলায় মোট ভোটারের সংখ্যা ১২২৯। এর মধ্যে জেলার চার পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলর, ১১ উপজেলার উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এবং ৮৮ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যরা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও সদস্য নির্বাচিত করবেন। নির্বাচন ঘিরে ইতোমধ্যে কঠোর নিরাপত্তা গ্রহণ করা হয়েছে। নির্বাচনের সবকটি কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে ভোট গ্রহণের সরঞ্জাম। নির্বাচনকমিশনের পক্ষ থেকে ভোটকক্ষে ভোটাররা যাতে মোবাইল ফোন নিয়ে প্রবেশ করতে না পারেন, অথবা ভোটকক্ষে ভোটদান বিশেষ করে গোপন কক্ষে ভোট প্রদানের ছবি তুলতে না পারেন, তা নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। জেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ সুষ্ঠু, অবাধ ও শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠানের লক্ষে যানবাহন ও নৌযান চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা, জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাহাঙ্গীর হোসেন।

নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন বলেছেন, ভোট ইভিএমএ হবে। নির্বাচনে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা থাকবে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটরা কাজ করবেন। কেন্দ্রে পর্যাপ্ত পুলিশ থাকবে। র‌্যাবও টহল দেবে। কেউ নির্বাচনী পরিবেশের বিন্দু মাত্র বিঘ্ন সৃষ্টি করলে, তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এদিকে, জেলা পরিষদ নির্বাচনে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে ‘চেয়ারম্যান’ পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতার বিষয়টি। চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন ,নূরল হুদা মুকুট এবং খায়রুল কবীর রুমেন ।

জনমত জরিপে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১১ টি উপজেলার মাঝে ৬টি উপজেলায় রুমেন এগিয়ে রয়েছেন ।বাকী ৫টি উপজেলায় লড়াই হবে হাড্ডাহাড্ডি ।কোন ধরনের অঘটন না ঘটলে রুমেন খেলার শেষ সময়ে বাজিমাত করে বিজয়ী হবেন ।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *