1. newsjibon@gmail.com : adminsp :
শিশুর স্বাস্থ্য সুরক্ষায় মায়ের দুধের বিকল্প নেই - সুনামগঞ্জ প্রতিদিন
বৃহস্পতিবার, ১১ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৩০ পূর্বাহ্ন

শিশুর স্বাস্থ্য সুরক্ষায় মায়ের দুধের বিকল্প নেই

  • মঙ্গলবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৭৪ বার পঠিত
Spread the love

বিশেষ প্রতিনিধি: বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ-২০২৩ উপলক্ষ্যে মাতৃদুগ্ধের গুরুত্ব, উপকারিতা এবং মাতৃদুগ্ধ বিকল্প আইন ২০১৩ ও বিধি ২০১৭ বিষয়ক অবহিতকরণ কর্মশালা মঙ্গলবার দুপুরে জেলা শহরের ইপিআই ভবনে অনুষ্ঠিত হয়।
কর্মশালায় বলা হয়, শিশুর স্বাস্থ্য সুরক্ষায় মাতৃদুগ্ধের বিকল্প নেই। জন্মের পর সঙ্গে সঙ্গে মায়ের দুধ ছাড়া শিশুদের অন্য কিছু দেওয়া যাবে না। জন্মের ছয় মাসের মধ্যে শিশুকে মায়ের দুধের বিকল্প কোন খাদ্য দেওয়া যাবে না। মায়ের দুধে শিশুর প্রয়োজনীয় সব ধরনের পুষ্টি উপাদান সঠিক মাত্রায় থাকে। এ ছাড়া মায়ের দুধে আছে শতকরা ৯০ ভাগ পানি। সে জন্য ৬ মাস বয়স পর্যন্ত শুধু বুকের দুধই শিশুর জন্য যথেষ্ট। এমনকি শিশুকে ৬ মাস বয়স পর্যন্ত আলাদা পানি পান করতে দেওয়ারও প্রয়োজন নেই। মায়ের দুধ পান শিশু মৃত্যুর হারও কমিয়ে দেয়।
সুনামগঞ্জের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. শোকদেব সাহার সঞ্চালনায় কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠানের এপ্লাইড নিউট্রিশনিস্ট ডা. জয়া শীষ রায়, প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠানের সহকারি পরিচালক ডা. মোহাম্মদ শোয়াইব, বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ সুনামগঞ্জের সহযোগী অধ্যাপক ডা. প্রানকৃষ্ণ কিশোর রায়, সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের সহকারি পরিচালক ডা. মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান, শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. আশুতোষ সিংহ, সুনামগঞ্জ জেলা ক্লিনিক ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের সভাপতি ডা.সৈয়দ মোনাওয়ার আলী, ফার্মেসি মালিক সমিতির প্রতিনিধি ম.আলতাবুর রহমান প্রমুখ।
অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্বাবধানে ছিলেন সুনামগঞ্জ সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সিনিয়র স্বাস্থ্য-শিক্ষা কর্মকর্তা ওমর ফারুক।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডা. জয়া শীষ রায় বলেন, আমাদের দেশে শতকরা ৬৫ভাগ মায়ের দুধ পান করে শিশুরা এখোনো আর মাতৃদুগ্ধের বাহিরে রয়েছে ৩৫ভাগ। এটিও সরকার নিশ্চিত করতে চায়। এজন্য সচেতনতা সৃষ্টি, গুড়ো দুধের বিজ্ঞাপন না করা, কোন চিকিৎসককে উপহার না দেয়াসহ আইন ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের উপর গুরুত্বারোপ করেন। শুধু তাইনা ফার্মেসি কিংবা কনফেকশনারীসহ ব্যবসায়ীক কোন প্রতিষ্ঠানে গুড়ো দুধের বিজ্ঞাপন প্রদর্শণ করা হলে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণেরও পরামর্শ দেন তিনি।
তৃণমুল পর্যায়ে সচেতনতা সৃষ্টিতে স্বাস্থ্য বিভাগের পাশাপাশি সকল শ্রেণি পেশার মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে। অন্যথায় শতভাগ মাতৃদুগ্ধের আওতায় নেয়া অসম্ভব হবে বলে মতামত ব্যক্ত করেন তিনি।
চিকিৎসক, নার্স, সাংবাদিক, ক্লিনিক মালিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার ৩৪জন উক্ত কর্মশালায় অংশ গ্রহণ করেন।


Spread the love
এই বিভাগের আরো খবর

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: জুনায়েদ চৌধুরী জীবন

© All rights reserved © সুনামগঞ্জ প্রতিদিন
Theme Customized BY LatestNews
error: Content is protected !!