1. newsjibon@gmail.com : adminsp :
শাল্লায় ইউপি সদস্যের অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন - সুনামগঞ্জ প্রতিদিন
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ১০:৩৭ অপরাহ্ন

শাল্লায় ইউপি সদস্যের অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন

  • শুক্রবার, ২ জুন, ২০২৩
  • ৯৩ বার পঠিত
Spread the love

শাল্লা প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার ১নং আটগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের,৭নং ওয়ার্ডের সদস্য নূরুল হকের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম,দুর্নীতি, গরীব ও দুস্থ মহিলাদের জন্য ভিজিডি কার্ড স্ত্রী এবং বোনের নামে ভাগিয়ে নেয়ার প্রতিবাদে ও তাকে অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন করেছে ৭নং ওয়ার্ডের সর্বস্তরের জনগণ। শুক্রবার বিকাল ৪ টায় স্থানীয় শ্যামারচর বাজারে এলাকাবাসীর উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ইউপি সদস্য মো:নুরুল হক বিভিন্ন অনিয়মের সাথে জড়িত।তার নেতৃত্বে এলাকায় মাদকের উপকরণ বিক্রি করা হয়।বিভিন্ন প্রজেক্টের কাজ না করেই টাকা উঠিয়ে নেন। তার স্ত্রী ও বোনের নামে ভিজিডি কার্ড করা সহ নানা দুর্নীতির সাথে জড়িত ও তার কুকর্ম নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। তারা ইউপি সদস্য নুরুল হকের শাস্তি ও অপসারণের দাবি জানান। আবুল মিয়ার সভাপতিত্বে ও আনোয়ার হোসাইনের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সিরাজুল ইসলাম, মুজাহিদ মিয়া,জহির মিয়া,ময়না মিয়া,কাদির মিয়া,মতু মিয়া,রমজান মিয়া প্রমুখ।
প্রসঙ্গত উপজেলার আটগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য নুরুল হক খোদ তাঁর স্ত্রী ও বোনের নামে ভিজিডি কার্ড করায় এলাকায় রীতিমতো চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। গেল ৪ মাসের ভিজিডি’র চালও উত্তোলন করা হয়েছে তাদের নামে। সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর খাদ্য সহায়তা প্রকল্পের আওতায় ভিজিডি কার্ডের মাধ্যমে খাদ্যসহায়তা প্রদান করা হয়। কিন্তু সেই দরিদ্রদের জন্য ভিজিডি’র বরাদ্দ কার্ড করায় ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির আশ্রয় নিয়েছেন আটগাঁও ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বার নূরুল হক। অনুসন্ধানে জানা যায়, উপজেলার আটগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের ৭নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত মেম্বার নূরুল হক ২০২৩-২৪ চক্রে মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তর থেকে ইস্যু করা ৫৯নং কার্ডটি তার স্ত্রী খালেদা খানম কলি ও আপন বোন মোছাঃতাহেরা আক্তারের নামে ৬নং কার্ড ইস্যু করেছেন। অনুসন্ধানে আরো জানা যায়, বৈবাহিক সূত্রে মেম্বার নূরুল হকের বোন তাহেরা আক্তার নেত্রকোনার খালিয়াজুড়ি উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের কল্যাণপুর গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা। ওই ইউপি সদস্য উক্ত ভিজিডি কার্ডের আওতায় তার স্ত্রী ও বোনের নামে প্রতি মাসে ৬০ কেজি করে চালও তুলছেন। ইতোমধ্যে তিনি ৪ মাসের চাল উত্তোলন করে ফেলেছেন। এবং এই ইউপি সদস্যের স্ত্রী ও আপন বোনের নামে ভিজিডি কার্ড করে দেওয়ার বিষয়টি ইতোপূর্বেই এই প্রতিবেদকের কাছে স্বীকারোক্তি মূলক বক্তব্যও দিয়েছেন।


Spread the love
এই বিভাগের আরো খবর

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: জুনায়েদ চৌধুরী জীবন

© All rights reserved © সুনামগঞ্জ প্রতিদিন
Theme Customized BY LatestNews
error: Content is protected !!