1. newsjibon@gmail.com : adminsp :
প্রধানমন্ত্রী সময়ের ব্যবধানে সুনামগঞ্জকেও মন্ত্রীত্ব উপহার দিতে পারেন...মানিক এমপি - সুনামগঞ্জ প্রতিদিন
শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:৩০ পূর্বাহ্ন

প্রধানমন্ত্রী সময়ের ব্যবধানে সুনামগঞ্জকেও মন্ত্রীত্ব উপহার দিতে পারেন…মানিক এমপি

প্রতিদিন প্রতিবেদকঃ
  • বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
  • ৫৭ বার পঠিত
Spread the love


সুনামগঞ্জে সাংবাদিক,দলীয় নেতাকর্মী ও নির্বাচনী এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সক্রিয় উপস্থিতি ও মিলন মেলায় জন্মদিনের ফুলেল শুভেচ্ছায় অভিষিক্ত হলেন সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য ও সরকারী প্রতিশ্রæতি সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান গণ মানুষের নেতা মুহিবুর রহমান মানিক।
বুধবার (২৮ ফেব্রæয়ারি) রাতে সুনামগঞ্জ সার্কিট হাউসে জেলার সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় তিনি জেলায় চলমান বিভিন্ন সরকারী প্রকল্পের কার্যক্রম নিয়ে খোলামেলা আলোচনা করেন। ছাতক-সুনামগঞ্জ-মোহনগঞ্জ পর্যন্ত রেল লাইন স্থাপনের বিষয়টি এখন থমকে গেছে জানিয়ে সুনামগঞ্জ ৫ আসনে ৫ বারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক বলেন, ছাতক সুনামগঞ্জ মোহনগঞ্জ হয়ে রেল লাইন হবে এটা সুনামগঞ্জবাসীর প্রাণের দাবি। সুনামগঞ্জ জেলার মধ্যে ছাতকেই একমাত্র রেলপথ রয়েছে। আমরা চাই সেই রেলপথটাকে অগ্রসর করতে। দেশে রেলপথ নিয়ে ব্যাপকভাবে কাজ হচ্ছে। আমাদের সুযোগ হয়েছিলো যখন বাবু সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত রেলমন্ত্রী হয়েছিলেন। আমরা আশায় বুক বেধে সুনামগঞ্জে তাঁকে সংবর্ধিত করতে এসেছিলাম। ছাতকেও তাঁকে বিশাল গণ সংবর্ধনা দেয়া হয়েছিল। তাকে অনুরোধ করেছিলাম ছাতক-সুনামগঞ্জ- মোহনগঞ্জ রেল লাইন সম্প্রসারণের জন্য। তিনি গণদাবীর প্রেক্ষিতে আশ্বস্থ করেছিলেন এবং ঐ সময়ই তিনি একটি টিম পাঠিয়েছিলেন। জাতীয় নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেছিলেন একসাথে মোহনগঞ্জ পর্যন্ত পারবনা, তবে ছাতক থেকে সুনামগঞ্জ পর্যন্ত রেল লাইন হবে। কিন্তু এটিরও দৃশ্যমান কিছুই আমরা দেখতে পারছি না। মাঝখানে একবার এদিকে হবে না, ওইদিকে হবে এটি নিয়ে টানাপোড়েন ছিল। এখন এটি হওয়ার কোনো লক্ষণ দেখছি না। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জ জেলার পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ড.খায়রুল কবির রুমেন এডভোকেট, দৈনিক সুনামগঞ্জ প্রতিদিনের স¤পাদক আহমদুজ্জামান চৌধুরী হাসান, সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির সাবেক সভাপতি লতিফুর রহমান রাজু, দৈনিক সুনামগঞ্জ খবরের স¤পাদক পঙ্কজ দে ও সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি আল হেলাল প্রমুখ।
জেলার সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক আরও বলেন, কেউ কেউ বলেছেন,ছাতক থেকে সুনামগঞ্জ রেল লাইন আসতে দুইবার সুরমা নদী পার হতে হবে। এসব কথা যারা বলেন এদের ভৌগোলিক কোন জ্ঞান নেই। ছাতক থেকে সুনামগঞ্জ পর্যন্ত আসতে কোন নদী পার হতে হয় না। ছাতকে একটি রেল স্টেশন আছে, ছাতক একটি শিল্প এলাকা। তাই যেখানে সাধারণ মানুষের উপকার হবে সেদিকেই আমাদের অগ্রসর হতে হবে। আমি মনে করি ছাতক থেকে সুনামগঞ্জ পর্যন্ত সরাসরি রেলপথ হলে সরকারের টাকা সাশ্রয় হবে এবং যারা অন্যদিকে বিভিন্ন সড়কের সাথে রেলপথ করতে চাচ্ছেন আমরা সেটি চাই না। কারণ ওইদিকের রাস্তাগুলো ছয় লেনে উন্নীত করতে হবে। সেখানে গাড়ি চলে বেশি। তাই আমরা অন্য কোনো পথে নয়, ছাতক-সুনামগঞ্জ সরাসরি রেলপথ চাই। এজন্য শুধু সংসদ সদস্যরা, জনপ্রতিনিধিরা কথা বললে হবে না সুনামগঞ্জের সাংবাদিক ও সিভিল সোসাইটিসহ সবাইকে একত্রিত হয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।
মতবিনিময় সভায় এমপি মুহিবুর রহমান মানিক বলেন, ছাতক উপজেলা বাংলাদেশের ১০০ শিল্প অঞ্চলের মধ্যে একটি হবে। ইতিমধ্যে ছাতক রেল স্টেশনে আবারও কার্যক্রম শুরু হবে। সিলেট-ছাতক রেলপথে যাতায়াত শুরু হবে। যার জন্য ৩০০ কোটি টাকা বরাদ্দ এসেছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীর কথা ভেবে এই বরাদ্দ দিয়েছেন। যেটির টেন্ডার দ্রæতই হয়ে যাবে। এছাড়া সুনামগঞ্জ মেডিকেল কলেজের কাজ ধীরগতিতে হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক।
সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময়ের পরপরই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সুনামগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক জননেতা নোমান বখত পলিনের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিককে জন্মদিনের ফুলেল শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন। এসময় জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এডভোকেট চান মিয়া,দপ্তর সম্পাদক এডভোকেট বিমান কান্তি রায়,এডভোকেট ছায়াদ আলী ও এডভোকেট মাহবুবুল হাছান শাহীনসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। পরে প্রতিদিন প্রতিনিধির বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সাংবিধানিক প্রশ্নের উত্তরে জেলার জেষ্ট এই সাংসদ বলেন,জেলার মিনিস্টার ইনচার্জ বলে আলাদা কোন প্রশাসনিক পদ বর্তমান সরকারের নেই। ৫টি বিশাল নির্বাচনী এলাকা হওয়া স্বত্তেও সুনামগঞ্জ জেলা এবার মন্ত্রীত্ব থেকে বঞ্চিত হয়েছে প্রসঙ্গে তিনি বলেন,সুনামগঞ্জের চাইতে অনেক ছোট নির্বাচনী এলাকা বিশেষ করে পার্বত্য জেলা যেখানে একটি জেলায় একটি আসন বা দুটি আসন রয়েছে তাদের ভাগ্যে একাধিক মন্ত্রীত্ব পদ জুটেছে। কিন্তু আমরা বৃহত্তর সিলেটবাসীতো কম পাইনি। আমাদের বিভাগে ৩ জন সুযোগ্য মন্ত্রী আমরা পেয়েছি। এবং যেগুলো পেয়েছি সবগুলোই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়। এবং যারা আমাদের মন্ত্রী হয়েছেন তাদের সবাই ক্লিন ইমেজের পলিটিশিয়ান। জেলা হিসেবে আমরা মন্ত্রীত্ব না পেলেও যে একেবারে কিছুই পাইনি তা বলা যাবেনা। প্রথমত আমাদের সাবেক পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান সাহেব পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি,সুনামগঞ্জ সদর আসনের এমপি ড.মোহাম্মদ সাদিক জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সম্পর্কীত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং আমি নিজেও একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থায়ী কমিটির সভাপতি ছাড়াও প্রবাসী কর্মসংস্থান ও বৈদেশিক মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য হয়েছি। সুতরাং আমাদের প্রাপ্তি কোন অংশেই কম নয়। আমরা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোকে জবাবদিহীতার আওতায় এনে কাজ ও সেবার পরিধি নি:সন্দেহে বাড়াতে পারবো বলে আমি বিশ্বাস করি। আসাম পাকিস্তান ছাড়াও স্বাধীনতা লাভের ৫৩ বছরের ব্যবধানে ছাতক দোয়ারাবাসী কখনও মন্ত্রীত্ব পায়নি এমন প্রশ্নের জবাবে সুনামগঞ্জ ৫ আসনের সর্বাধিক ৬ বারের নির্বাচিত এই জনপ্রতিনিধি বলেন,মন্ত্রীত্ব বিষয়টি কোন শাসনামল থেকে নয় সংসদীয় রাজনীতিতে এটি নির্ভর করে সংসদ নেতা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপর। তিনি সংখ্যাগরিষ্ট দলের নেতা হিসেবে সরকার প্রধান হওয়ার পরপরই যাকে যোগ্য,বিশ্বস্থ ও দক্ষ মনে করেন তাকেই মন্ত্রী নিয়োগ করতে পারেন। তিনি আরো বলেন,প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সুনামগঞ্জ সম্পর্কে অত্যন্ত সজাগ ও সচেতন। তিনি হয়তো সময়ের ব্যবধানে সুনামগঞ্জকেও মন্ত্রীত্ব উপহার দিতে পারেন।


Spread the love
এই বিভাগের আরো খবর

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: জুনায়েদ চৌধুরী জীবন

© All rights reserved © সুনামগঞ্জ প্রতিদিন
Theme Customized BY LatestNews
error: Content is protected !!