1. newsjibon@gmail.com : adminsp :
দোয়ারাবাজার প্রতিপক্ষর নির্যাতন বাড়িছাড়া ৭ সদস্যর পরিবার - সুনামগঞ্জ প্রতিদিন
বৃহস্পতিবার, ১১ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:৫৮ অপরাহ্ন

দোয়ারাবাজার প্রতিপক্ষর নির্যাতন বাড়িছাড়া ৭ সদস্যর পরিবার

এনামুল কবির মুন্না, দোয়ারাবাজার
  • বুধবার, ২০ মার্চ, ২০২৪
  • ১৩ বার পঠিত
Spread the love

দোয়ারাবাজারর পল্লীত প্রতিপক্ষর জুলুম, অত্যাচার ও নির্যাতন বাড়িছাড়া হয়ছ ৭ সদস্যদর একটি স্বছল পরিবার। বসতঘর ভাংচুর, পুকুরর মাছ ও বক্ষরাজি নিধন, নগদ অর্থকড়ি ও মূল্যবান আসবাবপত্র লুট নিয় রক্তাক্ত জখম করে একটি নিরীহ পরিবারক বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিয়ছে প্রতিপক্ষর দাঁঙ্গাবাজ লাকজন। সম্প্রতি নির্মম লামহর্ষক এ ঘটনাটি ঘটছে উপজলার নরসিংপুর ই্উনিয়নর পুরান সিরাজপুর গ্রাম। স্ত্রী, এক কন্যা ও চার পুত্রসন্তান নিয়ে ওই গ্রামের ইর্শাদ মড়লর পুত্র কাঠমিস্ত্রি সিরাজ আলীর সংসার। বাবার মৃত্যুর পর থেকে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলছিল গ্রামের প্রভাবশালী পরিবারের সঙ্গ। শষমষ প্রতিপক্ষর নির্যাতন ও গলাধাক্কায় সব হারিয় নি:স্ব হয় বাড়ি ছাড়া ৭ সদস্য নিয়ে অন্যের বাড়িতে মাথাগাঁজার ঠাই করেছে ওই নির্যাযিত পরিবারটি। মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্র জানা যায়, প্রায় বছর খানেক পূর্ব গ্রামের আব্দুল কাদির এর ছেলে আব্দুছ ছালাম এর ব্যটারীচালিত অটারিকশাটি সিরাজ আলীর বাড়ির মিটার থেকে প্রতিদিন চার্জ দিতে বায়না ধরে। সিরাজ আলী এতে রাজি না হল তারা ক্ষিপ্ত হয় ওঠে আব্দুছ ছালাম গংরা। বাড়িঘর ভাংচুর, গাছ-গাছালি ও পুকুরর মাছ নিধনসহ পরিবারর সবাইক প্রাণ মারার হুমকি গ্রদান কর তারা। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৯ ফব্রুয়ারি সিরাজ আলী বাদি হয় আব্দুছ ছালামক প্রধান কর গং ১০/১২ জনর বিরুদ্ধ দায়ারাবাজার থানায় একটি সাধারণ ডায়রি দায়র কর। এত তারা আরা ক্ষিপ্ত হয় গত ১০ ফব্রুয়ারি সকাল বিবাদী আব্দুছ ছালাম গংরা কাঠমিস্ত্রি সিরাজ আলীর বাড়িত অনধিকার প্রবশ হাকডাক ও গালমদ করল সিরাজ আলী ঘর থক বর হল তাক এলাপাথারি কিলঘুসি ও লাথি মর আহত কর। এসময় স্বামীক বাঁচাত স্ত্রী রাকিয়া বগম এগিয় এল এলাপাথারি কিলঘুসিম, লাথি মর রামদা দিয় বুকর বামপাশ কাপ দিয় তাক রক্তাক্ত জখম কর প্রতিপক্ষর লাকজন। এ ঘটনায় রক্তাক্ত রাকিয়া বগমক সিলটর এমএজি ওসমানী মডিকল কলজ হাসপাতাল ভর্তি কর তার স্বামী সিরাজ আলীক প্রাথমিক চিকিৎসা দওয়া হয়। পরদিন আব্দুছ ছালামক প্রধান আসামি কর ১২ জনর নাম উল্লখ কর আরা ৫/৬ জনর বিরুদ্ধ দায়ারাবাজার থানায় মামলা নং (০৫/১৯) দায়র করন। যার ধারা- ১৪৩/৪৪৭/৪৪৮/৩২৩/৩২৪/৩০৭/৩৫৪/৪২৭/৩৮০/৫০৬/৩৪ পনাল কাড। ওই মামলায় আসবাবপত্র, ঘর ভাংচুর ও নগদ অর্থসহ সায়া তিন লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি দখানা হয়ছ। পরবর্তীত মামলার ঘটনার সত্যতা পয়ছন মামলার কারী কর্মকর্তা এসআই আতিয়ার রহমান। এদিক মমিলার প্রধান আসামি আব্দুছ ছালামক গ্রফতার কর কার্ট চালান দয়ার পর জামিন মুক্ত হয় এস আরা বপরায়া হয় ওঠন বল বাদি সিরাজ আলীর অভিযাগ। ওই গ্রামর বীর মুক্তিযাদ্ধা হাজি মাবারক আলীর নতত্ব তার ছলপলসহ গ্রামর দাঁঙ্গাবাজ লাকজনর মারমুখি আচরণ স্ত্রী,কন্যা ও চার পুত্র সন্তান নিয় চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছন বল জানান বাদি সিরাজ আলী। সিরাজ আলীর আহত স্ত্রী রাকিয়া বগম কানায় ভঙ পড় বলন, ‘নিজদর বাড়িঘর হারিয় স্বামী সন্তÍান নিয় আজ পরর বাড়িত আশ্রয় নিয় অস্থায়ীভাব বসবাস করছি। নিরাপত্তাহীনতায় দুটি ছল সুদুর ঢাকা শহর পটর তাগিদ ছুট যায়। এদিক অর্থাভাব মামলা মাকদ্দমা পরিচালনা করাতা দূরর কথা সন্তানদের মুখ দু‘মুঠা অন জাগাত হিমশিম খাছন স্বামী বচারা। আমাদর বাড়িঘর, আসবাবপত্র ও নগদ অর্থকড়িসহ হারানা সবকিছু ফিরিয় দওয়াসহ রক্তাক্ত জখমর পূর্ণ বিচার চাই।‘ এ ব্যাপার মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আতিয়ার রহমান জানান, মামলাটি আদালত বিচারাধীন রয়ছ। মামলার আসামিরা বর্তমান জামিন আছ।


Spread the love
এই বিভাগের আরো খবর

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: জুনায়েদ চৌধুরী জীবন

© All rights reserved © সুনামগঞ্জ প্রতিদিন
Theme Customized BY LatestNews
error: Content is protected !!