শিরোনাম
  জামালগঞ্জে বিএনপি নেতা এমদাদুল হক আফিন্দীর নামে চাঁদাবাজির অভিযোগ :       জামালগঞ্জে হাওরে মাছের আকাল, চাষের মাছই ভরসা       ছাতক পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগে আদালতে মামলা       দিরাইয়ে মডেল মসজিদের নির্মাণ কাজে ধীরগতি       আজ পহেলা সেপ্টেম্বর রানীগঞ্জ গণহত্যা দিবস       খানাখন্দে ভরা জামালগঞ্জ কারেন্টের বাজার সড়ক,ভোগান্তি অর্ধলক্ষ মানুষের       শ্রীরামসী গণহত্যা দিবস পালিত       এক হাজার পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর উপহার প্রদান করলেন মুকুট       তাহিরপুরে শহীদ সিরাজের সমাধিতে এমপি সহ নেতাকর্মীদের দোয়া       সুনামগঞ্জের সম্ভাবনাময় পর্যটন নিয়ে সরকার ব্যাপক আন্তরিক পর্যটন সচিব    


প্রতিদিন প্রতিবেদক :
সুনামগঞ্জ সরকারী কলেজ এর ৭৫ বছর বর্ষপুর্তি পুনর্মিলনী উদযাপন কমিটির সদস্যসচিব আবু তাহের মোঃ রুহুল আমিন তুহিন এর বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ২রা ফেব্রুয়ারি রোববার প্রধানমন্ত্রীর পুরাতন সংসদ ভবনস্থিত কার্যালয়ে অভিযোগটি দায়ের করেছেন সুনামগঞ্জ সরকারী কলেজের এমএ প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থী খায়রুল ইসলাম।
অভিযোগে প্রকাশ,শহরের হাজীপাড়া আবাসিক এলাকার বসুন্ধরা ৩২ নং বাসভবনের বাসিন্দা মরহুম ডাঃ আব্দুস সাত্তারের পুত্র আবু তাহের মোঃ রুহুল আমিন তুহিন, জোট সরকারের শাসনামলে জাতীয় সংসদের বিএনপি দলীয় সাবেক হুইপ এডভোকেট ফজলুল হক আছপিয়ার আপন ভাগ্নে। ১/১১ সরকারের আমলে চাঁদাবাজী মামলার আসামী হয়ে তিনি ৩ মাস পলাতক ছিলেন। বিগত ২০১৯ সাল ছিল সুনামগঞ্জ কলেজ প্রতিষ্ঠার ৭৫ বছর। ঐ বছরে ৭৫ বছর বর্ষপূর্তি করার নিয়ম থাকলেও রুহুল তুহিনের নেতৃত্বাধীন আয়োজক কমিটি পর পর ৩টি তারিখ দিয়েও প্রাক্তন ছাত্রছাত্রী পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করেনি। পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের নামে মোটা অঙ্কের টাকা আত্মসাৎ এর অসদুদ্দেশ্যে তিনি ছাত্রলীগ,আওয়ামীলীগ ও মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের লোকদের বাদ দিয়ে জোর করে আগামী ৭-৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ইং পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান আয়োজন করার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছেন। সুনামগঞ্জ কলেজের সাবেক ছাত্রলীগ নেতাকর্মী,বীর মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদেরকে বাদ দিয়ে সার্বজনীন আয়োজক কমিটির পরিবর্তে তিনি বেছে বেছে তার প্রতিভূ লোকদেরকে নিয়ে পকেট কমিটি গঠন করেছেন। শুরু থেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিকেরা তার আয়োজক কমিটির প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপন করলেও তিনি সকলকে নিয়ে সার্বজনীন আয়োজক কমিটি পুনর্গঠন করেননি। এছাড়া আয়োজক কমিটির সদস্য-সচিব সেজে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের নামে সাবেক শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ১ হাজার টাকা করে ফি নিয়ে রেজিস্ট্রেশন গ্রহন করেন তিনি। আবার কারো কারো কাছ থেকে ৫ শত টাকা হারে আদায় করেন। দেশ বিদেশের অনেক শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অনুষ্ঠান উপলক্ষে মোটা অঙ্কের টাকাও চাঁদা হিসেবে উত্তোলন করেছেন। তথাকথিত কমিটিতে তৎকালীন জাসদ ছাত্রলীগ ও ছাত্র ইউনিয়নের একাংশের নেতাকর্মীদেরকে রাখলেও বঙ্গবন্ধুর আদর্শের প্রকৃত সৈনিক সাবেক ছাত্রলীগ ও বর্তমান আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদেরকে তিনি কমিটিতে রাখেননি।
উল্লেখ্য যে,৭১ এর মুক্তিযুদ্ধে এই কলেজের ছাত্র, সুনামগঞ্জ মহকুমা ছাত্রলীগ সেক্রেটারী সর্বজনাব তালেব উদ্দিন, ছাত্রলীগ নেতা হারুন-অর রশীদ ও জগৎজ্যোতি দাশ প্রমুখ শহীদ হলেও তার নেতৃত্বাধীন আয়োজক কমিটি কোন শহীদ পরিবারের খবর নেয়নি। যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থিত নিউইয়র্ক আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও সুনামগঞ্জ মহকুমা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নুরুজ্জামান চৌধুরী শাহীসহ যুক্তরাজ্য কানাডা ও মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে অবস্থানরত ছাত্রছাত্রীদেরকে কোন খবর করেননি তিনি। স্বাধীনতা যুদ্ধের পর থেকে কলেজ ছাত্র সংসদ নির্বাচনে ছাত্রলীগসহ মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের যেসব নেতাকর্মীরা ভিপি জিএস পদে নির্বাচিত হয়েছেন এবং বর্তমানে দেশে অবস্থান করছেন তাদেরকেও কোন নিমন্ত্রণপত্র প্রদানতো দূরের কথা আয়োজক কমিটিতে পর্যন্ত রাখেননি।
এছাড়াও দেশের রাজধানী ঢাকা,বিভাগীয় শহর সিলেট ও জেলার প্রত্যেক উপজেলায় অবস্থানরত এই কলেজের প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীদেরকে তিনি কোন খবর বা পত্র প্রদান করেননি। সম্প্রতি রুহুল তুহিনের নেতৃত্বাধীন আয়োজক কমিটির বিভিন্ন ব্যর্থতা গাফিলতি ও স্বেচ্ছাচারিতা নিয়ে দৈনিক সুনামগঞ্জ প্রতিদিন পত্রিকায় কয়েকটি ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এসব প্রতিবেদনে সাবেক ছাত্রলীগ নেতাদের দেয়া মতামতের আলোকে উল্লেখ করা হয়,জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ১৭ই মার্চ ২০২০ইং বা মুজিব বর্ষের আগে নয় সুনামগঞ্জ কলেজের ৭৫ বছর বর্ষপূর্তি ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে বা পরে করলে ভাল হয়। কিন্তু রুহুল তুহিন তার ব্যক্তিগত ইচ্ছেমতেই মহান বিজয় মাসের আগে তড়িগড়ি করে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান সম্পন্ন করার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন।
উল্লেখ করা আবশ্যক যে,জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ১৯৭৩ সালে সুনামগঞ্জ কলেজের পূনর্গঠনে রাষ্ট্রীয় তহবিল হতে ৪০ হাজার টাকা অনুদান প্রদান করেছেন। বিভিন্ন সময়ে কলেজের উন্নয়নে বর্তমান মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সরকারের অনেক অবদান রয়েছে। কিন্তু রুহুল তুহিন শহরের চিহ্নিত মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী দালাল,রাজাকার ও তাদের সন্তানদের কে নিয়ে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান সম্পন্ন করার নামে ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নকারীদেরকে বিষোদগার ও উপেক্ষা করছেন। অভিযোগে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের নামে রুহুল তুহিন কর্তৃক উত্তোলন করা ৭০ লাখ টাকার হিসাব আদায়সহ চিহ্নিত স্বার্থান্বেষী মহলের স্বার্থে আয়োজিত ৭-৮ ফেব্রয়ারি ২০২০ইং তারিখে সুনামগঞ্জ সরকারী কলেজের ৭৫ বছর বর্ষপুর্তি উপলক্ষে তথাকথিত পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান বাতিলের ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নিকট দাবী জানানো হয়।
অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চেয়ে সুনামগঞ্জ সরকারী কলেজ এর ৭৫ বছর বর্ষপুর্তি পুনর্মিলনী উদযাপন কমিটির সদস্যসচিব আবু তাহের মোঃ রুহুল আমিন তুহিন এর মুঠোফোনে কল করলে তিনি বলেন,আমরা মুজিববর্ষের প্রতি সম্মান রেখেই কলেজের বর্ষপুর্তি উদযাপন শেষ করবো। মুজিববর্ষে রাষ্ট্রীয় প্রতিটি কর্মসুচিতে আমরা নিজেদেরকে নিবেদিত করবো। আমি নিজে জেলা জাসদের সেক্রেটারী ও ৭১ এর ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সদস্যসচিব এবং সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাবেক সভাপতি। কমিটির কার্যকরী আহবায়ক জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান। আমরা মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তিসহ কলেজের প্রাক্তন ছাত্র ও দলমত নির্বিশেষে সবাইকে নিয়ে কাজ করছি। ১৭ ই মার্চ জাতির জনকের জন্মদিন বা মুজিবর্ষের পরে নয়,যেহেতু অনেক আগে সিদ্বান্ত নিয়েছি সেহেতু ৭-৮ ফেব্রুয়ারি নির্ধারিত সময়েই আমরা পুনর্মিলনী উদযাপন করবো ইনশাল্লাহ।




১৮ কিলোমিটার ফ্লাইওভার নির্মাণ করে সুনামগঞ্জের সাথে ধর্মপাশার যোগাযোগ স্থাপন করা হবে : পরিকল্পনা মন্ত্রী

তাহিরপুরের সাবেক এমপি কালিচরন মুচির পরিবারে এখনও টিকে আছে নাগরী ভাষা

বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির প্রতিবাদ-বিক্ষোভ

আমলাদের ‘পাছায় লাথি’ ফর্মুলায় দুঃস্থ তালিকা

গরু চুরির প্রতিবাদ করতে গিয়ে জামালগঞ্জে দুই পক্ষের সংঘর্ষ। আহত ৪।

আওয়ামীলীগের ৬ইউনিটের সম্মেলন প্রস্ততি কমিটি দলকে গতিশীল করতে করা হয়েছে

২০ ফেব্রুয়ারি পরিকল্পনা মন্ত্রীর দিরাই সফর নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত আ.লীগ,দেখানো হতে পারে কালো পতাকা

সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালের প্রধান সহকারী ইকবাল ও তার স্ত্রীর সম্পদের উৎস কোথায় ?

সুনামগঞ্জ সরকারী কলেজ পুনর্মিলনী : সদস্যসচিব এর বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অভিযোগ দায়ের

এমপিরা অতঃপর ‘স্যার’ বলবেন ডিসিদের !!

error: Content is protected !!